সামাজিক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় ‘পিপিজি’ সদস্যদের নানামুখী উদ্যোগ

সামাজিক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় রাজশাহীতে বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে ‘পিস প্রেসার গ্রুপে’র (পিপিজি) সদস্যরা। এসব কার্যক্রমের মাধ্যমে নিজেদের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং সম্প্রতি প্রতিষ্ঠায় সমাজের নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরফলে ‘পিস প্রেসার গ্রুপে’র সক্ষমতাও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

উল্লেখ্য, ‘পিপিজি কর্মসূচি’টি ‘ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল’-এর ‘স্ট্রেনদেনিং পলিটিকাল ল্যান্ডস্ক্যাপ’ প্রকল্প ও ‘ইউএসএআইডি’-এর সহায়তায় এবং ‘স্পেড-২’ প্রকল্পটি ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেক্টোরাল সিস্টেম (আইএফইএস) এবং ‘ডিএফআইডি’-এর সহায়তায় পরিচালিত।

নিম্নে পিপিজির সদস্যদের উদ্যোগে রাজশাহীতে কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে তার একটি বিবরণ তুলে ধরা হলো:

১. রাজনৈতিক মতপার্থক্য ভুলে একসাথে বাংলা বর্ষবরণ:
আড়ম্বরপূর্ণভাবে বাংলা নববর্ষ-১৪২৫ বরণ করে মহাদেবপুর, ধামইরহাট, পত্নীতলা ও সাপাহারের ‘পিস প্রেসার গ্রুপে’র সদস্যরা। পান্তা-ইলিশের আয়োজন এখানে নানা শ্রেণি-পেশা এবং রাজনৈতিক মতপার্থক্যকে এক কাতারে নিয়ে আসে। মূলত বাঙালির ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দিতে এধরনের আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), জাতীয় পার্টি, বাসদ এবং বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উক্ত শান্তি ও সম্প্রীতি সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন।

২. পেভ হারমনি প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ ও কর্মশালা:
৭-৮ মে এবং ১৪-১৫ মে ২০১৮ সাপাহার এবং ধামইরহাট উপজেলার পিস প্রেসার গ্রুপের সদস্যদের নিয়ে দুই দিনব্যাপী ‘পেভ হারমোনি প্রশিক্ষক’ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে পরবর্তীতে সাতটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাগুলোতে ইউনিয়নের পর্যায়ের রাজনৈতিক নেতা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং উদীয়মান তরুণ নেতাদের অংশগ্রহণ করেন এবং স্থানীয়ভাবে সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখতে কর্মশালা থেকে যৌথ ঘোষণা দেয়া হয়।

৩. সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় তারুণ্যের সংলাপ:
বাংলাদেশের ইতিহাসে তরুণরাই সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে অনেক সমস্যার সমাধান করেছে। দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে তরুণদের ভূমিকা এখনো প্রাসঙ্গিক। এছাড়া টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টে (এসডিজি) বলা হয়েছে- কেউ পিছিয়ে থাকবে না। তাই আমাদের সবাইকে নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে, যেখানে প্রত্যেক মানুষ মর্যাদা নিয়ে বেঁচে থাকবে এবং কোনো সাম্প্রদায়িক চেতনা বা জঙ্গিবাদের ধারণা আমাদের গ্রাস করতে না পারে। এই আকাক্সক্ষা থেকেই ‘পিস প্রেসার গ্রুপ’ রাজশাহী সদর, ধামইরহাট এবং গুরুদাসপুর উপজেলায় আয়োজন করে ‘তারুণ্যের সংলাপ’। সংলাপগুলোতে উপস্থিত হয়ে তরুণ-তরুণীরা নিজেদের ও বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবার সুযোগ পায়।

৪. পিপিজির পুনর্মিলন ও সম্প্রীতি সমাবেশ:
সংঘাত নয়, ঐক্যের বাংলাদেশ গড়তে রাজনৈতিক দল এবং বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ়করণ, বাল্যবিবাহ ও মাদকমুক্ত উপজেলা গড়তে চারঘাট, ধামইরহাট-সহ রাজশাহীর বেশ কয়েকটি উপজেলায় পিপিজির পুনর্মিলন ও সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসব অনুষ্ঠান থেকে পিপিজির সদস্য, স্থানীয় উজ্জীবক, ইয়ুথ লিডার, গণগবেষক ও নারীনেত্রীদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্ঠার মাধ্যমে এলাকায় শান্তি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা ও বজায় রাখার আহ্বান জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.