নওগাঁয় বাল্যবিবাহ নিরোধে সেরা উদ্যোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর স্বীকৃতি অর্জন

দি হাঙ্গার প্রজেক্টের পক্ষ থেকে মাননীয় সংসদ সদস্যদের নিকট থেকে ক্রেস্ট গ্রহণ করছেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর প্রোগ্রাম অফিসার আসির উদ্দিন ।

নওগাঁ জেলায় বাল্যবিবাহ নিরোধে সেরা উদ্যোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করেছে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ পত্নীতলা। ০৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ এবং ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের উদ্যোগে এবং নওগাঁ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে “বাল্যবিবাহ নিরোধ কার্যক্রমে তৃণমূল পর্যায়ে উদ্বুদ্ধকরণ ও দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালায়” এ স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। তদুপলক্ষ্যে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু ইউসুফ মো. গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা-১৯ এর সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান, সিরাজগঞ্জ-২ এর সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. হাবীবে মিল্লাত মুন্না, মেহেরপুর -১ এর সংসদ সদস্য প্রফেসর ফরহাদ হোসেন, নওগাঁ-৫ এর সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক, নওগাঁ-৩ এর সংসদ সদস্য ছলিম উদ্দিন তরফদার, জেলা প্রশাসক ড. আমিনুর রহমান, পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন। দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত কর্মশালায় মূল সেশন পরিচালনা করেন ডা: এনামুর রহমান এমপি এবং প্রশ্নোত্তর পরিচালনা করেন প্রফেসর ডা: হাবীবে মিল্লাত মুন্না। হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার এবং সভাপতি আ ফ ম গোলাম কিবরিয়া বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে প্রশাসনের সাথে কাজ করায় প্রতিষ্ঠান হিসেবে দি হাঙ্গার প্রজেক্টের ভূয়সি প্রশংসা করেন এবং সম্মিলিতভাবে নওগাঁ জেলাকে বাল্যবিবাহমুক্ত জেলা হিসেবে ঘোষণার দাবি তোলেন। জেলা প্রশাসক জেলায় ৪০ শতাংশ বাল্যাবিয়ের তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেন এবং রাজশাহী বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে কম বাল্যবিয়ে নওগাঁয় অনুষ্ঠিত হয় বলে জানান। প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে কাজের অভিজ্ঞতা বর্ণনায় জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম, গার্লস নট ব্রাইড এলায়েন্স এবং দি হাঙ্গার প্রজেক্টের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা এসডিজি – ৫ বাস্তবায়নে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের ৫ ধারা মোতাবেক নির্ধারিত কর্তৃপক্ষ হিসেবে জনপ্রতিনিধিদের জোরালো ভুমিকা রাখার দাবি রেখেছি। কর্মশালায় ৩টি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। ব্যক্তি হিসেবে ২২টি বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে ভুমিকা রাখায় পত্নীতলা সদর ইউনিটের ইয়ূথ লিডার মাহমুদুন্নবী এবং প্রতিষ্ঠান হিসেবে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট, পত্নীতলাকে স্বীকৃতি স্বরুপ ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট এবং নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। উল্লেখ্য, কর্মশালায় জেলার ১১ উপজেলার ৯০০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.