নিজ কমিউনিটির পরিবর্তন চান নাসিরা বেগম

সমাজ পরিবর্তনের জন্য প্রথমে নিজের মধ্যে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হয়। এজন্য প্রয়োজন হয় নিবিড় প্রশিক্ষণ। হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পানি উমদা ইউনিয়নের কাজী নাসিরা বেগমের জন্য এমন প্রশিক্ষণের সুযোগ করে দেয় দি হাঙ্গার প্রজেক্ট। ২০১৪ সালে তিনি দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর উজ্জীবক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণটি তার জানার পরিধি বাড়িয়ে দেয় এবং সমাজ পরিবর্তনে ভূমিকা রাখার জন্য তাকে উদ্দীপ্ত করে তোলে।

প্রশিক্ষণ থেকে ফিরে এসে নাসিরা বেগম তার ৩নং ওয়ার্ডের জনগণকে সংগঠিত করে বিভিন্ন সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করতে শুরু করেন। ইতিমধ্যে তিনি বাল্যবিবাহ ও যৌতুক বন্ধ, পুষ্টি এবং টিকাদান ইত্যাদির ওপর প্রায় ৫০টি উঠান বৈঠক পরিচালনা করেছেন। এর মাধ্যমে তিনি কমপক্ষে ৫০০ জন নারী-পুরুষকে উপরোক্ত বিষয়গুলোর ব্যাপারে সচেতন করে তুলতে পেরেছেন। নাসিরা বেগম প্রায় ১৫০ জন শিশুর জন্মনিবন্ধন, ৮০ জন শিশুর টিকাদান এবং প্রায় ৫০ জন অসহায় নারীর জন্য স্থানীয় কমিউনিটি ক্লিনিক ও হাসপাতালে চিকিৎসা সুবিধা নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া তিনি দুটি বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছেন। এদের মধ্যে ১২ বছর বয়সী তামান্না আক্তার-এর বাল্যবিয়ে বন্ধ হওয়ায় সে এখন নিয়মিত বিদ্যালয়ে যাচ্ছে।

নাসিরা বেগম ওয়ার্ড সিটিজেন কমিটির একজন সক্রিয় সদস্য। এছাড়া নিয়মিত ওয়ার্ডসভায় উপস্থিত হয়ে তিনি নারী ও অসহায় মানুষের কথা তুলে ধরেন। বর্তমানে পরিবারের সদস্য ও কমিউনিটির মানুষরা নাসিরা বেগম-কে সমাজ উন্নয়নমূলক কাজে সহায়তা ও উৎসাহ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.