দারিদ্র্যকে জয় করেছেন কদরের নেছা

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পর আর স্কুলে যাওয়া হয়নি কদরের নেছার। দারিদ্র্যের কাছে নতি স্বীকার করে কৈশোর পেরোনোর আগেই বাবা-মা তাকে বিয়ে দিয়ে দেন। কদরের নেছার স্বামী ছিল অলস প্রকৃতির মানুষ। ফলে তাদের সংসারে অভাব লেগেই থাকত। কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের মেরকট গ্রামের কদরের নেছা ২০১৫ সালে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর উজ্জীবক প্রশিক্ষণে অংশ নেন। ‘আত্মশক্তিতে বলীয়ান ব্যক্তি কখনও দরিদ্র থাকতে পারে না’– এ স্লোগানটি তার মনে রেখাপাত করে। তিনি আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেন। প্রশিক্ষণ থেকে ফিরে তিনি পার্শ্ববর্তী গ্রামের কুটির শিল্পী জনৈক শাহজাহানের কাছ থেকে বাঁশ ও বেত দিয়ে বিভিন্ন দ্রব্য-সামগ্রী তৈরির কাজ শিখে নেন। কদরের নেছা অল্প সময়ের মধ্যে বাঁশ ও বেত দিয়ে তৈরি বিভিন্ন দ্রব্য-সামগ্রী প্রস্তুতে পারদর্শী হয়ে উঠেন। বর্তমানে এ কুটির শিল্পের কাজ করে তিনি যে আয় করছেন তা তার পরিবারের নিত্য অভাব-দারিদ্র্যকে পেছনে ফেলতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে।