জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে গোলটেবিল বৈঠক: ১৮’র সাথে কোনো শর্ত নয়

coxকোনো শর্ত ছাড়াই মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ১৮ বছর বহাল রেখে ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৬’ পাশ এবং বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে জাতীয় কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য তৃণমূলে জনমত সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলা পর্যায়ে বেশ কয়েকটি গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করা হয়। জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম-এর উদ্যোগে, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর সহযোগিতায় এবং দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর পরিচালনায় উক্ত গোলটেবিল বৈঠকগুলো অনুষ্ঠিত হয়।

৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬, বরিশাল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজন করা হয় এমন একটি গোলটেবিল বৈঠক। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার নুরুল আলম। সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান। অন্যান্যের মধ্যে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবুল কালাম আজাদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) কাজী হোসনেয়ারা এবং জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রাশিদা বেগম। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর আঞ্চলিক সমন্বয়কারী জনাব মেহের আফরোজ মিতা।

মো. নুরুল আলম বলেন, ‘যারা বাল্যবিবাহে ইচ্ছুক, তারা যে কোনো উপায়ে জন্মনিবন্ধন করে মেয়ের বয়স বাড়িয়ে নেয়। ফলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়াও কঠিন হয়ে পড়ে। কতিপয় কাজীও শিশুদের বয়স বেশি দেখিয়ে বিয়ে দিতে বর ও কনে পক্ষকে সহায়তা করে। তাই ইতিমধ্যেই সরকারের পক্ষ থেকে কাজীদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’ এছাড়া বিবাহ রেজিস্ট্রারদের ইউনিয়ন পরিষদে বসে তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্যও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান বলেন, ‘সচেতনতার অভাব এবং সামাজিক ও অর্থনৈতিক বিভিন্ন কারণে বাল্যবিবাহ হয়ে থাকে। জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা বন্ধে রোল মডেল তৈরি-সহ বেতার, টেলিভিশনে বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের প্রচারণা এবং প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই।’ বাল্যবিবাহ নিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে পারলেই এক্ষেত্রে সাফল্য আসবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

কাজী হোসনেয়ারা চরম দারিদ্র্য ও ক্ষুধা নির্মূল করতে পারলে বাল্যবিবাহ বন্ধ করা সহজ হবে বলে অভিমত প্রকাশ করেন।

এছাড়াও ২২ ডিসেম্বর ২০১৬ কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায়, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৬ কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলায়, ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৬ হবিগঞ্জে, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৬ যশোরে, ২১ ডিসেম্বর ২০১৬ ঝালকাঠিতে, ১০ ডিসেম্বর ২০১৬ খুলনায়, ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ মাদারীপুরে, ০৬ অক্টোবর ২০১৬ ময়মনসিংহে, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৬ নাটোরে, ০৩ অক্টোবর ২০১৬ রাজশাহীতে, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৬ রংপুরে এবং ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ টাঙ্গাইলে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
লক্ষ্যেই হাওরপাড়ের দিরাই উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নসহ প্রতিটি ওয়ার্ডে সচেতনতা মূলকসভা করা হবে, চরনারচর ইউনিয়নে উদ্বোধনীসভা ও রাজানগরে ইউনিয়নে সমাপনী অনুষ্ঠান করা হবে।
বুধবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে গ্রাম বাংলার তৃণমূল পর্যায়ে ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ ভোজ্যতেল ও আয়োডিনযুক্ত প্রচারাভিযান প্রকল্পের অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে তিনি এসব কথা বলেন। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আলমগীর কবির। দি হাঙ্গার প্রজেক্টের সুনামগঞ্জ জেলা সমন্বয়কারী আব্দুল হালিমের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার, ভাইস চেয়ারম্যান গোলাপ মিয়া, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছবি চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.