জাতীয় পর্যায়ে প্রকল্পের শিক্ষণ ও অভিজ্ঞতা বিনিময়: আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও তৃণমূলে গণতন্ত্র চর্চায় উদাহরণ সৃষ্টি

Lead picture for mdg-4_replaceতৃণমূলে অংশগ্রহণমূলক গণতন্ত্র শক্তিশালী করে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনের লক্ষ্যে ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল জেলার ১০টি ইউনিয়নে দু বছর মেয়াদি ‘এমডিজি ইউনিয়ন: তৃণমূলে অংশগ্রহণমূলক গণতন্ত্র শক্তিশালীকরণের একটি প্রয়াস’ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়। এ প্রকল্পের ভাল শিক্ষণগুলো নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে তুলে ধরার মাধ্যমে অংশগ্রহণমূলক গণতন্ত্রকে সুসংহত করার লক্ষ্যে ২৪ মে ২০১৫ জাতীয় প্রেসক্লাবে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা জনাব এম হাফিজউদ্দিন খান। সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ও গ্লোবাল ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. বদিউল আলম মজুমদার। সভায় অতিথি আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সাবেক সচিব আবু আলম শহীদ খান, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ, স্থানীয় সরকার বিভাগের সাবেক সচিব এ ওয়াই বি সিদ্দিকী এবং ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি (সিইপি) এর ব্যবস্থাপক মোশতাক আহমেদ।

সভায় এম হাফিজউদ্দিন খান বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্র চর্চার সংকট রয়েছে। তৃণমূলে এ সংকট আরও বেশি। কিন্তু দি হাঙ্গার প্রজেক্ট ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল জেলার দশটি ইউনিয়নে গণতন্ত্র চর্চার ক্ষেত্রে একটি উদাহরণ সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছে। আমি মনে করি, এ উদাহরণ সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়া দরকার। কারণ টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে এবং স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করতে হলে জনঅংশগ্রহণে এবং গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা দরকার।’

ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘জনবল সংকটসহ বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর উদ্যোগে ও কারিগরি সহায়তায় ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল জেলার দশটি ইউনিয়ন পরিষদ পদ্ধতিগতভাবে পরিচালিত হচ্ছে এবং জনঅংশগ্রহণে সেখানকার আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিত হচ্ছে। স্বেচ্ছাব্রতীরা পরিষদকে সহায়তা করছে এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে তারা বিভিন্ন প্রচারাভিযান পরিচালনা করছে। আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি যে, জনগণের সম্পৃৃক্ততায় এবং ইউনিয়ন পরিষদের নেতৃত্বে একটি ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করা সম্ভব।’

আবু আলম শহিদ খান বলেন, ‘বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। কিন্তু এগুলোর বাস্তবায়ন খুবই ধীর। ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে উন্নয়ন কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে চাই সদিচ্ছা। একজন ইউপি চেয়ারম্যান সচেষ্ট হলে ইউনিয়নের উন্নয়নে অনেক কিছুই করা সম্ভব।’ পরিষদকে আইন অনুযায়ী পরিচালনা করতে হলে ইউপি চেয়ারম্যানকে যোগ্য ও সক্রিয় হতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ ওয়াই বি সিদ্দিকী বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ হলো স্থানীয় উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু। তাই ইউনিয়ন পরিষদকে শক্তিশালী ও কার্যকর করে তোলা জরুরি। এ লক্ষ্যে স্থানীয় সরকারের বিকেন্দ্রীকরণ এবং ইউনিয়ন পরিষদের আর্থিক সীমাবদ্ধতা দূর করা দরকার।’

ড. তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদের নানা সীমাবদ্ধতা থাকার পরও পলিটিক্যালি মোটিভেটিভ একদল স্বেচ্ছাব্রতী থাকলে ইউনিয়নের অনেক সমস্যাই দূর করা সম্ভব। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট দশটি ইউনিয়নে তা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। তাই ব্র্যাকের উচিত হবে এক্ষেত্রে আরও বড় পরিসরে দি হাঙ্গার প্রজেক্টকে সহায়তা করা।’

ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চর ঈশ্বরদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোর্শেদ আলম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘বর্তমানে আমরা জনঅংশগ্রহণে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করি। পরিষদের আর্থিক সক্ষমতা বাড়ানোর লক্ষ্যে কর মেলার আয়োজন করি। সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে স্বেচ্ছাব্রতীদের উদ্যোগে এবং পরিষদের সহযোগিতায় উঠান বৈঠক-সহ বিভিন্ন প্রচারাভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।’

ময়মনসিংহ সদর উপজেলার কুষ্টিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন,  ‘এ প্রকল্পের মাধ্যমে বাস্তবায়িত বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও প্রচারাভিযানের কারণে জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। বাল্যবিবাহ-সহ বিভিন্ন কুসংস্কার দূর হয়েছে। আমার পরিষদের উদ্যোগে জনঅংশগ্রহণে ওয়ার্ডসভা ও উন্মুক্ত বাজেট অধিবেশন আয়োজন করছি।’

গোপালপুর উপজেলার ঝাওয়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর নেতৃত্বে এলাকায় আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমাদের মানসিকতার ইতিবাচক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। অনেক সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও আমরা বর্তমানে পদ্ধতিগতভাবে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলী পরিচালনা করছি।’

এছাড়া মতবিনিময় সভায় উজ্জীবক জিয়াউর রহমান তারা, দাপুনিয়া ও কুষ্টিয়া ইউনিয়নের স্বাস্থ্য পরিদর্শক নাজমুল হুদা, নারীনেত্রী আঞ্জু আনোয়ারা ময়না এবং ইয়ূথ লিডার তোফায়েল তাদের নিজ নিজ ক্ষেত্রে সফলতার কথা ও মতামত তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.