সামাজিক সম্প্রীতি কর্মশালার মধ্য দিয়ে ষোলটাকা ইউনিয়নের তিনটি ওয়ার্ডের মধ্যকার বিরোধ নিষ্পত্তি

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ষোলটাকা ইউনিয়নের ৬, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই রাজনৈতিক মতবিরোধ চলছিল। গত ৫ জানুয়ারি (২০১৪) জাতীয় নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন উপলক্ষে উক্ত ওয়ার্ডগুলোর ভোলাডাঙ্গা, কেশবনগর ও মানিকদিয়া গ্রামের লোকজনের মধ্যে বড় ধরনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার রেশ ধরে উক্ত তিন ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মধ্যে সম্প্রীতি নষ্ট হয়। এক গ্রামের মানুষ অন্য গ্রামে যাতায়াত করাও সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দেয়। এ দ্বন্ধের কারণে সকলের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করতে থাকে। এ অবস্থায় দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর সহযোগিতায় প্রতিটি ওয়ার্ডে দুটি করে ‘সামাজিক সম্প্রীতি ও নাগরিকত্ব’ বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কর্মশালাগুলোতে স্থানীয় গণ্যমান্য ও রাজনৈতিক নেতাগণ উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারী সামাজিক সম্প্রীতি রক্ষায় তাদের মতামত ব্যক্ত করেন। এ সময় রাজনৈতিক বিরোধ ও দ্বন্দ্বের বিষয়টিও আলোচনায় উঠে আসে। তারা এ সমস্যা সমাধানের উপায় খুঁজতে থাকেন। ৬নং ওয়ার্ডের উজ্জীবক এনামুল, শরিফুল, নারীনেত্রী নিলুফা ও মুক্তিযোদ্ধা এলাহী ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক, উজ্জীবক রওশন আলী ও আহাদ আলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে নিয়ে বিষয়টি মিমাংসা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সর্বশেষ মার্চ ২০১৫ এ অনুষ্ঠিত এক সমঝোতা সভার মধ্য দিয়ে তিনটি ওয়ার্ডের মধ্যকার দীর্ঘদিনের বিরোধ নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় এবং এলাকায় ফিরে আসে সম্প্রীতি।