সফলতার গল্প: পরিবর্তনের রূপকার নারীনেত্রী লাভলী খাতুন

lovely_success storyমেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার ধানখোলা ইউনিয়নের নারীনেত্রী লাভলী খাতুন। তিনি  ‘নারী নেতৃত্ব বিকাশ’ শীর্ষক বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণে পর নিজেকে স্বাবলম্বী করে তোলার পাশাপাশি অসহায় নারীদের উন্নয়নসহ বিভিন্ন সমাজ উন্নয়নমূলক কাজের পরিকল্পনা নেন। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তিনি প্রথমে স্থানীয় বাজারে একটি মুদি দোকান দেন। এর মধ্য দিয়ে বর্তমানে তিনি অনেকটাই স্বচ্ছল। অজপাড়া গাঁয়ের একজন নারী হয়েও দোকান দিয়ে লাভলী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন এবং সমাজের অসহায় নারীদের জন্য সৃষ্টি করেন অনুপ্রেরণা।

নারীনেত্রী লাভলী খাতুন স্থানীয় অসহায় ও গরিব নারীদের স্বাবলম্বী করে তোলার লক্ষ্যে দুটি সমবায় সমিতি গড়ে তোলেন। এর মাধ্যমে সমিতির ৬০ জন নারী সদস্য নিকট ভবিষ্যতে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। বর্তমানে লাভলীর নেতৃত্বে ওয়ার্ড অ্যাকশান টিমের সদস্যরা শিশুদের বিদ্যালয় থেকে ঝরে পড়া রোধে সক্রিয় রয়েছেন। ইতিমধ্যে তাদের প্রচেষ্টায় ২৫ জন ঝরে পড়া শিশুকে পুনরায় বিদ্যালয়গামীকরণ, ছয়টি শিশুবিবাহ বন্ধ, দশটি যৌতুকমুক্ত বিবাহ সম্পন্নকরণ এবং ২৫ জন গর্ভবতী নারীকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। লাভলী-সহ অন্যান্য স্বেচ্ছাব্রতী এবং ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগের ফলে ধানখোলা ইউনিয়ন আজ অনেকটাই শিশুবিবাহমুক্ত ইউনিয়ন হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে।