ময়মনসিংহে পাঁচটি গণগবেষনা কর্মশালা অনুষ্ঠিত: প্রতিটি ইউনিয়নে গণগবেষণা ফোরাম গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ

Untitledগণগবেষণা প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর উজ্জীবকগণ ইউনিয়ন সহায়ক এবং গ্রাম সহায়ক হয়ে উঠেন। তারা গ্রামবাসীদের নিয়ে গণগবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করেন। গণগবেষণা পদ্ধতিতে যারা সমস্যার মধ্যে আছেন তারা নিজেরাই নিজেদের সমস্যা চিহ্নিত করেন এবং সমাধানের পথ খুঁজে বের করেন। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ইউনিয়নে বিভিন্ন নামে গড়ে উঠছেে গণগবেষণা কেন্দ্র। দারিদ্র্য বিমোচনে এ কেন্দ্রগুলোতে অব্যাহতভাবে চলছে গণগবেষণা কর্মসূচি।

এ কর্মসূচিকে আরও বিস্তৃত করার লক্ষ্যে ‘একতাই শক্তি, সংগঠনই মুক্তি’ – এই মূলমন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে ময়মনসিংহের সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নে ২৯ জন নারী-পুরুষের অংশগ্রহণে তিন দিনব্যাপী ৭৯তম গণগবেষণা কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭-৯ এপ্রিল, ২০১৪ ময়মনসিংহের প্রশিকা আঞ্চলিক মানব সম্পদ কেন্দ্রে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালা পরিচালনা করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর আঞ্চলিক সমন্বয়কারী জয়ন্ত কর, প্রোগ্রাম অফিসার আবুল কালাম আজাদ, মাহমুদ হাসান রাসেল এবং সার্বিক সহযোগিতা করেন জেলা সমন্বয়কারী মোঃ আসলাম খান ও ইউনিয়ন সমন্বয়কারী ওমর ফারুক। উক্ত কর্মশালায় মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান রাবিক এবং আঁখি আমিনকে সমন্বয়ক নির্বাচিত করে ১০নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন গণগবেষণা ফোরাম গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৯-২১ এপ্রিল, ২০১৪ স্পন্দন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে চর ঈশ্বরদিয়া ইউনিয়নের ২৬ জনের অংশগ্রহণে ৮০তম, ২৮-৩০ এপ্রিল, ২০১৪ কুষ্টিয়া ইউনিয়নের ২৩ জনের অংশগ্রহণে ৮১তম, ৫-৭ মে, ২০১৪ প্রশিকা আঞ্চলিক কেন্দ্রে ভাবখালী ইউনিয়নের ৩৩ জনের অংশগ্রহণে ৮২তম এবং ৯-১১ মে, ২০১৪ বয়ড়া ইউনিয়নের ২৭ জন নারী-পুরুষের অংশগ্রহণে ৮৩তম গণগবেষনা কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।