সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় ‘স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালীকরণের মাধ্যমে এমডিজি ইউনিয়ন গঠন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

20140514_115955 ‘জনগণ, ইউনিয়ন পরিষদ এবং প্রশাসনের পারস্পরিক অংশীদারিত্বের ভিত্তিতেই বাংলাদেশের মানুষের জীবন-মানের উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব। কারো একার পক্ষে কোনো কিছুই করা সম্ভব নয়। এমডিজি’র লক্ষ্য পূরণে এই তিন স্টেকহোল্ডারের পাটনারশিপের কোনো বিকল্প নেই।’ – বললেন সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার নির্বাহী অফিসার জনাব আলতাফ হোসেন।

আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে গত ১৪মে সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলা মিলনায়তনে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর আয়োজনে ‘স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালীকরণের মাধ্যমে এমডিজি ইউনিয়ন গঠন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ওয়ার্ড সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য এবং উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ প্রায় শতাধিক নারী পুরুষের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দি হা্ঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ও গ্লোবাল ভাইস-প্রেসিডেন্ট ড.বদিউল আলম মজুমদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব হাফিজুর রহমান তালুকদার ও ভাইস-চেয়ারম্যান জনাব গোলাপ মিয়া।

আলোচনা পর্বে বক্তব্য রাখেন তাড়ল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব নুরুল হক তালুকদার, সরমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব এহসান চৌধুরী, জগদল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আব্দুছ ছালাম, রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আকিক আহমেদ এবং ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব আইয়ুব খান। স্থানীয় উন্নয়নের প্রশ্নে তাঁরা সকলেই ইউনিয়ন পরিষদের গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন যে, ইউনিয়ন পরিষদের সক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি পরিষদের সম্পদ বৃদ্ধি করতে হবে। রিলিফের পরিবর্তে জনগণকে কর্মমুখী করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি। এমপি’দের অবাঞ্ছিত হস্তক্ষেপ এবং সরকারি বিভিন্ন পরিপত্রও এলাকার উন্নয়নে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে বলে তারা মনে করেন।
20140514_120125
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে উন্নয়ন কার্যক্রমকে ফুটবল খেলার সাথে তুলনা করেন। তিনি বলেন, জনগণই প্রকৃত খেলোয়াড় বা মূল উদ্যোক্তা, আর ইউনিয়ন পরিষদ ও প্রশাসন থাকবে কোচ্-ম্যানেজার-রেফারির ভূমিকায় তথা জনগণকে দক্ষ করার পাশাপাশি সম্পদের সুষম বন্টনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করবে। সুশীল সমাজ, এনজিও এবং মিডিয়া দর্শক হিসেবে খেলোয়ারদের উৎসাহ যোগাবে। এ প্রসঙ্গে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর ভূমিকা উল্লেখ করে তিনি বলেন যে, হাঙ্গার প্রজেক্ট বিশ্বাস করে, মানুষ তার নিজ ভাগ্য গড়ার কারিগর। এ লক্ষ্যে দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ব্র্যাক ও হাঙ্গার প্রজেক্ট যৌথভাবে ইউনিয়ন পরিষদকে শক্তিশালী করার মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের নেতৃত্বে ইউনিয়নগুলোকে এমডিজি ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে আগামী দুইবছর অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করবে।
বিশেষ অতিথি দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব হাফিজুর রহমান তালুকদার হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
দিরাই উপজেলার সমন্বয়কারী আক্তারুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সভায় ইউনিয়নের সমন্বয়কারীগণ এবং দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর সিলেট অঞ্চলের সমন্বয়কারী তুহীন আলম সার্বিক সহায়তা প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.