আমাদের পরিচয়

বিশ্ববিস্তৃত ক্ষুধা-দারিদ্র্য দূরীকরণের ব্রত নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাব্রতী সংস্থা হিসেবে ১৯৭৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর যাত্রা শুরু হয়। ইউরোপ-অস্ট্রেলিয়াসহ এশিয়া, আফ্রিকা এবং ল্যাতিন আমেরিকার ২২টি দেশে এর কার্যক্রম বিস্তৃত। ১৯৯১ সালে এনজিও ব্যুরোর নিবন্ধন প্রাপ্তির মাধ্যমে বাংলাদেশে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট কাজ শুরু করে।

দি হাঙ্গার প্রজেক্ট গতানুগতিক কোন এনজিও বা দাতা সংস্থা নয়। এটি একটি বিশ্বাস, একটি প্রতিশ্রুতি ও একটি সামাজিক আন্দোলন। বিশ্বাসটি হলো, প্রতিটি মানুষ অমিত সম্ভাবনা নিয়ে জন্মগ্রহণ করে। জন্মগতভাবে সেই অমিত সম্ভাবনাই তাকে করতে পারে দারিদ্র্যমুক্ত এবং আত্মনির্ভরশীল। মানুষ যদি তার অন্তর্নিহিত ক্ষমতার সৃজনশীল বিকাশের সুযোগ পায়, সে যদি আত্মশক্তিতে বলীয়ান হয়, তাহলে সে নিজেই তার ভাগ্যোন্নয়নের দায়িত্ব নিতে পারে। নিজ ভবিষ্যতের কারিগরে পরিণত হতে পারে। এ চেতনাবোধ থেকেই দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশে একটি গণজাগরণ সৃষ্টি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এই গণজাগরণের লক্ষ্য হলো সমাজের প্রতিটি মানুষকে উজ্জীবিত ও সংগঠিত করা, যাতে প্রত্যেক উজ্জীবক ও সামাজিকভাবে সংগঠিত মানুষ নিজেদের জীবনের হাল নিজেরাই ধরতে পারে। নিজেদের অবস্থান থেকে নিজস্ব সম্পদকে প্রাথমিক পুঁজি করে সৃজনশীল উপায়ে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য দূর করতে একক ও যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে সক্ষম হয়।

Comments

  1. I am Nobenour Rahman Khan, over 20 years in the development sector (Under UN refugee agency). In this process involvement of political leaders from various political patries is necessary. If NGO forces some how able to involve and mobilize the target group and political leaders at all level it would be some thing what we need here in Bangladesh.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *